Uncategorized

আজকের স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪ | ২৪, ২২, ২১, ১৮ ক্যারেট সোনার দাম

  • আজ ২৯ মে ২০২৪ স্বর্ণের বর্তমান দাম বাংলাদেশে।

আজকের স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪, স্বর্ণ হল এমন একটি ধাতব পদার্থ যা বহু প্রাচীনকাল থেকে হাজার হাজার বছর ধরে গোটা মানব সভ্যতাকে মুগ্ধ করেছে। এই মনোমুগ্ধময় হলুদ ধাতুর মুগ্ধকর বিষয়টি হল এই ধাতুর সৌন্দর্য এবং উজ্জ্বল দীপ্তি। মজার বিষয়টি হল যুগের পর যুগ চলে গেছে কিন্তু সময়ের সাথে তালে তাল মিলিয়ে এই ধাতু নিজের গুরুত্ব ও মূল্য দুটোই বজায় রেখেছে মানব সমাজে। আর তাইতো স্বর্ণ নামক এই হলুদ ধাতু ইতিহাস সাক্ষী রেখে পৃথিবীর বুকে সবচেয়ে মূল্যবান ধাতু গুলির মধ্যে অন্যতম হয়ে উঠেছে।

স্বর্ণ নামক এই মহামূল্যবান ধাতু মানব সমাজে পরিচিতি পেয়েছিল প্রায় ৪০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে। অর্থাৎ আপনি বলতে পারেন, যবে থেকে মানুষ আধুনিকতার স্বপ্ন দেখেছিল দুই চোখে প্রায় সে সময় থেকেই। তারপর কেটে গেছে বহুকাল এখন আধুনিকতার খোলস ছেড়ে অত্যাধুনিক হয়ে উঠছে আমাদের সোনার বাংলা। অবশ্য মানুষ যতই অত্যাধুনিক হয়ে উঠুক না কেন, সোনার রয়েছে নিজস্ব অত্যাধুনিকতা! যাকে কোনরকম ভাবেই অস্বীকার করা যায় না।

আজকের স্বর্ণের দাম বাংলাদেশ ২০২৪

বিগত বেশ কয়েক শতাব্দী ধরেই বাংলাদেশী সংস্কৃতি ও জীবনধারায় স্বর্ণ নামক এই সম্পদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। বিবাহ হোক বা কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠান, ‘স্বর্ণ’ বাংলাদেশের ঐতিহ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ ও অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠেছে। বিশেষত বিবাহ অনুষ্ঠানে নববধূকে এক অপরূপ সাজে সাজিয়ে তুলতে সোনার মতো এই মূল্যবান ধাতুর জুড়ি মেলা ভার। বিয়ে এবং কোনরকম ধর্মীয় অনুষ্ঠান ছাড়াও সোনার গহনা গুলি বংশ-পরম্পরায় পারিবারিক উত্তরাধিকার এবং আর্থিক নিরাপত্তা হিসাবে স্থানান্তরিত হয়ে থাকে।

আরও পড়ুন- ওমান রিয়াল রেট বাংলাদেশি টাকায় কত?

বর্তমান সময়ে তো আবার এই মহামূল্যবান স্বর্ণ নামক হলুদ ধাতু বাংলাদেশের মানুষের দৈনন্দিন জীবনে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। আমাদের সোনার বাংলার অর্থনৈতিক পরিকাঠামো যত উন্নত হয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষের নাগালে মধ্যে আসতে বাধ্য হয়েছে স্বর্ণ নামক এই হলুদ ধাতু।

এমন পরিস্থিতিতে সোনা ক্রয় ও বিক্রয়ের ক্ষেত্রে আপনার যে বিষয়গুলি জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তা হল, আমাদের বাংলাদেশে সোনার দাম নির্ধারণ করা হয় ডলার রেট ও বিশ্বের সার্বিক পরিস্থিতির উপর বিবেচনা করে। উক্ত পরিস্থিতি বিবেচনা করে বাংলাদেশে সঠিক রূপে সোনার দাম নির্ধারণ করে আমাদের সামনে উপস্থাপন করতে, বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি অর্থাৎ বাজুস সর্বোচ্চ রূপে ভূমিকা পালন করে থাকে। এখন আপনি ক্রেতা বা বিক্রেতা যেই হয়ে থাকুন না কেন আপনার জানা প্রয়োজন যে বাংলাদেশের বাজারে সোনার দাম প্রতিনিয়তই ওঠানামা করতে থাকে। তাই দেশীয় বাজারে বর্তমানে সোনার দাম কত চলছে সে সম্পর্কে ঙ অবগত থাকা আবশ্যিক।

আরো পড়ুন- আজ ২৯ মে ২০২৪ বাংলাদেশি টাকায় বিভিন্ন দেশের আজকের টাকার রেট।

দেশীয় বাজারে সোনার দাম প্রতিনিয়ত কমবেশি হওয়ার দরুন বহু বাংলাদেশি মানুষজন ইন্টারনেট মাধ্যমে “আজকের স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪?” সার্চ করে থাকেন। তাই বন্ধুরা আপনারা যে সমস্ত স্বর্ণপ্রেমী মানুষ বাংলাদেশের সোনার দাম কত চলছে? সে সম্পর্কে জানতে সত্যিই আগ্রহী হয়ে রয়েছেন আপনারা অতি অবশ্যই আপনাদের প্রশ্নের সঠিক ও যথাযথ উত্তর, উক্ত নিবন্ধের মধ্য দিয়ে পেয়ে যাবেন। একই সাথে আপনারা জানতে পারবেন স্বর্ণের বিভিন্ন প্রকারভেদ অর্থাৎ ক্যারেট পদ্ধতিতে কত ধরনের সোনা উপলব্ধ বাংলাদেশে, এছাড়াও কোন ক্যারেট সোনা অলংকার তৈরীর ক্ষেত্রে আপনার জন্য উপযুক্ত। তো চলুন বন্ধুরা আর দেরি না করে জেনে নেওয়া যাক, ক্যারেট পদ্ধতিতে স্বর্ণের বিভিন্ন প্রকারভেদ ও বাংলাদেশে বর্তমানে স্বর্ণের বাজার দর কত চলছে আজ।

আজকের স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪

আজ স্বর্ণের দাম বাংলাদেশে কত চলছে সে সম্পর্কে জানতে আগ্রহী সমস্ত প্রিয় বাংলাদেশী ভাই বোনেদের স্বাগত। বন্ধুরা আপনারা ইতিমধ্যেই নিবন্ধটির সামান্য রূপ পড়ে বুঝতে পেরেছেন, একাধারে যেমন আজ বাংলাদেশে সোনার দাম সম্পর্কে আপনাদের সাথে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করা হয়েছে তেমনি অপরদিকে আপনাদের অতি অবশ্যই জেনে রাখা উচিত যে, সোনা যেহেতু আমদানিকৃত একটি উপাদান সেক্ষেত্রে আমাদের বাংলাদেশে সোনার দাম প্রায় প্রতিনিয়তই উঠা-নামা করতে থাকে। এবং এই দাম বাজুস কর্তৃক সঠিকরূপে নির্ধারণ করা হয়ে থাকে।

যেহেতু প্রায় কিছুদিন অন্তর বাজুস করতে বাংলাদেশের সোনার দাম নতুন রূপে নির্ধারণ করা হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আমার বহু বাংলাদেশী ভাই বোনেরা ইন্টারনেট মাধ্যমে সার্চ করে থাকেন “আজকের স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪”? সম্পর্কে। এছাড়াও, ২৪ ক্যারেট, ২২ ক্যারেট, ১৮ ক্যারেট এবং ১৪ ক্যারেট হলমার্ক সোনার দাম বাংলাদেশে কত চলছে? এই প্রশ্ন গুলিও থেকে যায় সার্চ তালিকার মধ্যে। তাই বন্ধুরা আপনারাও যদি এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর এখনো পর্যন্ত ইন্টারনেট মাধ্যমে খুঁজে চলেছেন সেক্ষেত্রে আমরা বলব আপনারা উক্ত নিবন্ধটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ে দেখলেই আপনাদের জিজ্ঞাসু প্রশ্নের যথাযথ ও পুঙ্খানুপুঙ্খ সঠিক উত্তর পেতে সক্ষম হবেন।

আরো পড়ুন- সৌদি রিয়াল রেট বাংলাদেশী টাকায় কত?

ইতিমধ্যেই গত ১৯ মে ২০২৪, বাজুস কর্তৃক আবারো নতুন করে নির্ধারিত হয়েছে বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য। আমদানিকৃত বস্তু হিসাবে উক্ত নির্ধারিত দাম অনুযায়ী বাংলাদেশের স্বর্ণের দাম বেড়েছে বই কমেনি। নির্ধারিত নতুন দাম অনুযায়ী অলংকার উপযুক্ত সর্বোত্তম বিশুদ্ধ ২২ ক্যারেট হলমার্ককৃত প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ১,১৯,৫৪৪ টাকা। এছাড়াও, বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) পাকা সোনার মূল্য আনুমানিক ১,২৪,২০৯ টাকা। একই সময়, অলংকার উপযুক্ত বিশুদ্ধ ২১ ক্যারেট হলমার্ককৃত প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ১,১৪,১০৮ টাকা। একই প্রকার হলমার্ককৃত বিশুদ্ধ ১৮ ক্যারেট প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ৯৭,৮০২ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতিতে প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ৮০,৮৬৬ টাকা চলছে আজ।

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদ
দাম (১ ভরি)
২৪ ক্যারেট১,২৪,২০৯ টাকা (আনুমানিক)
২২ ক্যারেট১,১৯,৫৪৪ টাকা
২১ ক্যারেট১,১৪,১০৮ টাকা
১৮ ক্যারেট৯৭,৮০২ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে৮০,৮৬৬ টাকা

স্বর্ণের বর্তমান দাম বাংলাদেশে

“স্বর্ণের বর্তমান দাম বাংলাদেশে কত চলছে?” এই প্রশ্ন আমাদের প্রিয় পাঠকদের মনে মাঝেমধ্যেই উঁকি দিয়ে থাকে। কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার জানা প্রয়োজন যেহেতু স্বর্ণ একটি আমদানিকৃত মূল্যবান উপাদান স্বরূপ, সেক্ষেত্রে সোনার দাম এই ধাতুর বিশুদ্ধতার উপর নির্ভর করে ওঠানামা করতে থাকে এবং ক্যারেট হল বিশুদ্ধ সোনার প্রতীক রূপ। অর্থাৎ আপনি যখন কোন স্বর্ণ সামগ্রী ক্রয় করবেন, সেক্ষেত্রে ক্যারেট প্রতীক চিহ্নটি আপনাকে বুঝিয়ে দেবে ক্রয় করা স্বর্ণ কতটা পরিমাণ বিশুদ্ধ। অর্থাৎ ওই স্বর্ণ সামগ্রীতে কতটা পরিমাণ বিশুদ্ধ সোনা ও কতটা পরিমান খাদ মিশ্রিত রয়েছে।

আরো পড়ুন- আজকে কলকাতায় হলমার্ক সোনার দাম কত চলছে?

ক্যারেট পদ্ধতিতে সোনা বিভিন্ন ক্যারেটের হয়ে থাকে। বাজার চাহিদা ও ডলার পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে বিশুদ্ধ ক্যারেটের উপর নির্ভর করে বাংলাদেশে সোনার দামের তারতম্য ঘটে থাকে। যেমন, সর্বশেষ গত ১৯ মে ২০২৪ বাজুস কর্তৃক নির্ধারিত, ক্যাডমিয়াম হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম ১,০২,৪৯০ টাকা, ক্যাডমিয়াম হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম ৯৭,৮৩০ টাকা, ক্যাডমিয়াম হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম ৮৩,৮৫০ টাকা, এছাড়াও সনাতন পদ্ধতিতে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম ৬৯,৩৩০ টাকা

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদদাম (১০ গ্রাম)
২২ ক্যারেট১,০২,৪৯০ টাকা
২১ ক্যারেট৯৭,৮৩০ টাকা
১৮ ক্যারেট৮৩,৮৫০ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে৬৯,৩৩০ টাকা

২৪ ক্যারেট সোনার দাম ২০২৪ বাংলাদেশ

স্বর্ণ ক্রয় করতে গেলে ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ হলো সর্বোত্তম। কিন্তু আপনাকে মাথায় রাখতে হবে যে, আপনি যদি কোন স্বর্ণ অলংকার প্রস্তুত করতে চান সেক্ষেত্রে ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ কখনোই সর্বোত্তম হয়ে উঠতে পারে না। সর্বদা ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ আপনার কাছে তখনই সর্বোত্তম হয়ে উঠবে যখন আপনি বিশুদ্ধ স্বর্ণ বিস্কুট অথবা স্বর্ণ বার ক্রয় করবেন। কারণ বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বদা খাঁটি হয়ে থাকে, আর খাঁটি কথার অর্থ হল খাদ-বিহীন। তাই বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বদা নমনীয় ও ভঙ্গুর হয়ে থাকে। এজন্য এই বিশুদ্ধ ও খাঁটি স্বর্ণ দ্বারা অলংকার প্রস্তুত করা সম্ভব নয়।

আরো পড়ুন- সৌদি রিয়াল রেট বাংলাদেশ।

বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ হল ১০০ শতাংশ খাঁটি এই স্বর্ণ মাধ্যমে অন্য কোন ধাতুর মিশ্রণ থাকে না। স্থানীয় বাজারে আপনি খোঁজ করলে অতি অবশ্যই বুঝতে পারবেন যে এই ২৪ ক্যারেট সোনা সর্বদা ৯৯.৯ শতাংশ খাঁটি হিসাবে পরিচিত এবং এই স্বর্ণের নিজস্ব একটি স্বতন্ত্র ও উজ্জ্বল হলুদ রং সর্বদা বজায় থাকে। এজন্য বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা বহু স্বর্ণ প্রেমী মানুষ বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ ক্রয় করতে চান। অবশ্য বিশুদ্ধ স্বর্ণ ক্রয় করতে গেলে আপনাকে অতি অবশ্যই জানতে হবে বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট সোনার দাম কত চলছে আজ বাংলাদেশের বাজারে। তো চলুন বন্ধুরা দেখে নেওয়া যাক প্রতি এক গ্রাম, এক ভরি, এক আনা ও চার আনা বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের বর্তমান দাম কত চলছে।

আজকে ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের দাম কত?

  • বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ভরি সোনার দাম আনুমানিক ১,২৪,২০৯ টাকা। (১ তোলা)
  • বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট ১০ গ্রাম সোনার দাম আনুমানিক ১,০৬,৪৯০ টাকা
  • বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম আনুমানিক ১০,৬৪৯ টাকা
  • বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম আনুমানিক ৭,৭৬৩ টাকা
  • বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম আনুমানিক ৩০,৪৮৬ টাকা
  • বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট ১ কেজি সোনার দাম আনুমানিক ১,০৬,৪৯,০০০ টাকা

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদদাম
২৪ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি)১,২৪,২০৯ টাকা
২৪ ক্যারেট (১০ গ্রাম)১,০৬,৪৯০ টাকা
২৪ ক্যারেট (১ গ্রাম)১০,৬৪৯ টাকা
২৪ ক্যারেট (১ আনা)৭,৭৬৩ টাকা
২৪ ক্যারেট (৪ আনা)৩০,৪৮৬ টাকা
২৪ ক্যারেট (১ কেজি)১,০৬,৪৯,০০০ টাকা

বন্ধুরা আপনারা বিশেষ ভাবে মনে রাখবেন যে বাজুস কর্তৃক ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য নির্ধারণ করা হয় না। তাই উক্ত ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য অন্যান্য বিভিন্ন প্রকার স্বর্ণের মূল্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে নির্ধারণ করা হয়েছে। যদিও আমাদের বাংলাদেশের বহু মানুষ ইন্টারনেট মাধ্যমে খুঁজে থাকেন “আজ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে”? সেক্ষেত্রে আমার সমস্ত প্রিয় পাঠক বৃন্দদের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশের বাজারে চলতে থাকা আজকের ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য সম্পর্কে একটি সঠিক ও বাস্তব রেট দেয়ার সংক্ষিপ্ত প্রচেষ্টা করেছি।

আরো পড়ুন- কলকাতায় ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে?

২২ ক্যারেট সোনার দাম ২০২৪ বাংলাদেশ

স্বর্ণ ক্রয়ের ক্ষেত্রে হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট স্বর্ণ হল অলংকার প্রস্তুত এর জন্য সর্বোত্তম। কারণবশত বলা চলে, এই ২২ ক্যারেট স্বর্ণ বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের তুলনায় অনেকটা বেশি পরিমাণ দৃঢ় অর্থাৎ মজবুত হয়ে থাকে। এজন্য ২২ ক্যারেট স্বর্ণ অলংকার প্রস্তুত এর ক্ষেত্রে সর্বোত্তম। ২২ ক্যারেট স্বর্ণ অলংকার প্রস্তুতের জন্য মজবুত করে তুলতে প্রধান রূপে ভূমিকা পালন করে তামা , রুপো, দশটা এবং নিকেল এর মত অন্যান্য ধাতু। এছাড়াও ২২ ক্যারেট স্বর্ণ ৯১৬ মার্ক বিশিষ্ট স্বর্ণ নামেও পরিচিত। কারণ এতে ৯১.৬৭ শতাংশ খাঁটি স্বর্ণ রয়েছে এবং বাকি ৮.৩৩ শতাংশ থাকে অন্যান্য ধাতুর মিশ্রণ।

আরো পড়ুন- আনন্দবাজার পত্রিকা আজকের সোনার দাম ২০২

গোটা বিশ্বের বাজারে বাংলাদেশ দীর্ঘকাল ধরে দক্ষিণ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার উৎকৃষ্ট মানের ২২ ক্যারেট স্বর্ণ সমৃদ্ধ স্বর্ণ অলংকার ও গহনা উৎপাদনের জন্য পরিচিত। তাই বাংলাদেশের বাজারে উৎকৃষ্ট মানের অলংকার নির্মাণ উপযোগী ২২ ক্যারেট স্বর্ণের চাহিদাও রয়েছে প্রবল। অলংকার প্রস্তুত এর ক্ষেত্রে হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বোত্তম হওয়ার দরুন ইন্টারনেট মাধ্যমে এই উপযুক্ত স্বর্ণের প্রতি বহু মানুষ আগ্রহ দেখিয়ে থাকেন। অর্থাৎ বাংলাদেশ থেকে বহু সংখ্যক মানুষ ইন্টারনেট মাধ্যমে খুঁজে থাকেন “আজকের ২২ ক্যারেট স্বর্ণের দাম কত চলছে বাংলাদেশ?”

তো চলুন বন্ধুরা এখন দেখে নেওয়া যাক হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ভরি), ১০ গ্রাম, ১ গ্রাম, ১ আনা ও ৪ আনায় কত চলছে বাংলাদেশে।

আজকে ২২ ক্যারেট স্বর্ণের দাম কত?

  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি সোনার দাম ১,১৯,৫৪৪ টাকা। (১তোলা)
  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম সোনার দাম ১,০২,৪৯০ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম ১০,২৪৯ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম ৭,৪৭১ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম ২৯,৮৮৬ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ রতি সোনার দাম ১,২৪৫ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ কেজি সোনার দাম ১,০২,৪৯,০০০ টাকা

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদদাম
২২ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম /১ ভরি)১,১৯,৫৪৪ টাকা
২২ ক্যারেট (১০ গ্রাম)১,০২,৪৯০ টাকা
২২ ক্যারেট (১ গ্রাম)১০,২৪৯ টাকা
২২ ক্যারেট (১ আনা)৭,৪৭১ টাকা
২২ ক্যারেট (৪ আনা)২৯,৮৮৬ টাকা
২২ ক্যারেট (১ রতি)১,২৪৫ টাকা
২২ ক্যারেট (১ কেজি)১,০২,৪৯,০০০ টাকা

আরো পড়ুন- কলকাতায় ২২ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে?

২১ ক্যারেট সোনার দাম ২০২৪ বাংলাদেশ

হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বদা ২২ ক্যারেট স্বর্ণের তুলনায় বেশি মজবুত হয়ে থাকে। কারণবশত বলা চলে ২১ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বদা ২২ ক্যারেট স্বর্ণের তুলনায় কম বিশুদ্ধ হয়ে থাকে। তাই ২১ ক্যারেট স্বর্ণে খাদ এর পরিমাণও বেশি হয়ে থাকে। এখন বিশুদ্ধতার দিক থেকে গুণমান বিচার করতে গেলে দেখা যাবে, হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট স্বর্ণে বিশুদ্ধ স্বর্ণের পরিমাণ থাকে ৮৭.৫ শতাংশ এবং বাকি ১২.৫ শতাংশ থাকে অন্যান্য সংকর ধাতুর মিশ্রণ।

আরো পড়ুন- ওমানি রিয়াল টু বাংলাদেশি টাকা এক্সচেঞ্জ রেট।

সাধারণত হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট স্বর্ণ দ্বারা ব্রেসলেট, কানের দুল, আংটি ইত্যাদি স্বর্ণালংকার প্রস্তুত করা হয়ে থাকে। এজন্য ব্যাপক রূপে ২১ ক্যারেট স্বর্ণের চাহিদা রয়েছে বাংলাদেশে। আর চাহিদা থাকার দরুন বহু মানুষ ইন্টারনেট মাধ্যমে প্রতিনিয়ত খোঁজ করে চলেছেন “আজকের ২১ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে বাংলাদেশ?”তো চলুন বন্ধুরা এখন দেখে নেওয়া যাক হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ভরি), ১০ গ্রাম, ১ গ্রাম, ১ আনা ও ৪ আনায় কত চলছে বাংলাদেশে।

আজকে ২১ ক্যারেট স্বর্ণের দাম কত?

  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি সোনার দাম ১,১৪,১০৮ টাকা। (১তোলা)
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১০ গ্রাম সোনার দাম ৯৭,৮৩০ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম ৯,৭৮৩ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম ৭,১৩১ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম ২৮,৫২৭ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১ রতি সোনার দাম ১,১৮৮ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট ১ কেজি সোনার দাম ৯৭,৮৩,০০০ টাকা

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদদাম
২১ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম /১ ভরি)১,১৪,১০৮ টাকা
২১ ক্যারেট (১০ গ্রাম)৯৭,৮৩০ টাকা
২১ ক্যারেট (১ গ্রাম)৯,৭৮৩ টাকা
২১ ক্যারেট (১ আনা)৭,১৩১ টাকা
২১ ক্যারেট (৪ আনা)২৮,৫২৭ টাকা
২১ ক্যারেট (১ রতি)১,১৮৮ টাকা
২১ ক্যারেট (১ কেজি)৯৭,৮৩,০০০ টাকা

আরো পড়ুন- কলকাতায় ২১ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে

১৮ ক্যারেট সোনার দাম ২০২৪ বাংলাদেশ

১৮ ক্যারেট স্বর্ণ অনায়াসে স্বল্প ব্যয়ে ক্রয় করা সম্ভব। এখন কোন মানুষ যদি অত্যন্ত স্বল্প-ব্যয়ে কোন স্বর্ণ অলংকার প্রস্তুত করতে চান সেক্ষেত্রে ১৮ ক্যারেট স্বর্ণ ওই ব্যক্তির জন্য উপযুক্ত হয়ে উঠবে। বিশুদ্ধতার দিক থেকে হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের গুণমান বিচার করলে দেখা যাবে, এখানে রয়েছে বিশুদ্ধ ৭৫ শতাংশ সোনা যা অন্যান্য ধাতু যেমন তামা, রূপা এবং অন্যান্য সংকর ধাতুর ২৫ শতাংশের সাথে মিশ্রিত হয়ে রয়েছে । এই ধরনের স্বর্ণ হীরার গহনা প্রস্তুত করতে বেশি ব্যবহৃত হয়। যদিও বর্তমান বাংলাদেশে হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য আগের তুলনায় অনেকটা পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে।

আরো পড়ুন- মালয়েশিয়ান রিংগিত টু বাংলাদেশি টাকা এক্সচেঞ্জ রেট।

যেহেতু ১৮ ক্যারেট স্বর্ণ সাধারণত ২২ ক্যারেট ও ২১ ক্যারেট স্বর্ণের তুলনায় বেশি মজবুত ও স্বল্প মূল্যের হয়ে থাকে এজন্য বাংলাদেশের বাজারে হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের চাহিদা প্রবাল রূপে চোখে পড়ে। এই কারণে বহু স্বর্ণপ্রেমী বাংলাদেশি ইন্টারনেট মাধ্যমে হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য সম্পর্কে সার্চ করে থাকেন। তো চলুন বন্ধুরা এখন দেখে নেওয়া যাক হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ভরি), ১০ গ্রাম, ১ গ্রাম, ১ আনা ও ৪ আনায় কত চলছে বাংলাদেশে।

আজকে ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের দাম কত?

  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি সোনার দাম ৯৭,৮০২ টাকা। (১ তোলা)
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ১০ গ্রাম সোনার দাম ৮৩,৮৫০ টাকা
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম ৮,৩৮৫ টাকা
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম ৬,১১২ টাকা
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম ২৪,৪৫০ টাকা
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ১ রতি সোনার দাম ১,০১৮ টাকা
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট ১ কেজি সোনার দাম ৮৩,৮৫,০০০ টাকা

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদদাম
১৮ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম /১ ভরি)৯৭,৮০২ টাকা
১৮ ক্যারেট (১০ গ্রাম)৮৩,৮৫০ টাকা
১৮ ক্যারেট (১ গ্রাম)৮,৩৮৫ টাকা
১৮ ক্যারেট (১ আনা)৬,১১২ টাকা
১৮ ক্যারেট (৪ আনা)২৪,৪৫০ টাকা
১৮ ক্যারেট (১ রতি)১,০১৮ টাকা
১৮ ক্যারেট (১ কেজি)৮৩,৮৫,০০০ টাকা

আরো পড়ুন- কলকাতায় ২২ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে।

সনাতন পদ্ধতিতে সোনার দাম ২০২৪ বাংলাদেশ

সনাতন পদ্ধতিতে স্বর্ণের অর্থ হল, যে পদ্ধতিতে পুরাতন স্বর্ণ গলিয়ে নতুন করে স্বর্ণ অলংকার প্রস্তুত করা হয় এই পদ্ধতিকে সনাতন পদ্ধতি বলা হয়ে থাকে এবং এই পদ্ধতিতে প্রাপ্ত স্বর্ণ সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ হয়ে থাকে। যদিও বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের বাজারে স্বর্ণের দাম অত্যাধিক বৃদ্ধি পেয়েছে। এজন্য সনাতন পদ্ধতিতে স্বর্ণ ক্রয় এবং বিক্রয়ের চাহিদা বহুল রূপে প্রচলিত হয়েছে।

আপনাদের জানা প্রয়োজন যে, ২২ ক্যারেট এক ভরি স্বর্ণ অলংকারে ১৪ আনা ২ রতি বিশুদ্ধ স্বর্ণ মজুদ থাকে, ২১ ক্যারেটে ১৪ আনা ও ১৮ ক্যারেটে ১২ আনা বিশুদ্ধ স্বর্ণ মজুদ থাকে। সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণ অলংকারে বিশুদ্ধ স্বর্ণের পরিমাণ থাকে সর্বোচ্চ ১০ আনা। তাই বন্ধুরা এখন আপনারা যদি সনাতন পদ্ধতিতে স্বর্ণ ক্রয় অথবা বিক্রয় করতে চান সেক্ষেত্রে সনাতন পদ্ধতিতে বাজুস নির্ধারিত স্বর্ণের মূল্য কত চলছে তা জানাটা আপনার অত্যন্ত জরুরি। তো চলুন বন্ধুরা জেনে নেওয়া যাক সনাতন পদ্ধতিতে আজকের সোনার দাম কত চলছে বাংলাদেশ।

সনাতন পদ্ধতিতে আজকের স্বর্ণের দাম কত?

  • সনাতন পদ্ধতিতে ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি সোনার দাম ৮০,৮৬৬ টাকা। (১ তোলা)
  • সনাতন পদ্ধতিতে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৬৯,৩৩০ টাকা
  • সনাতন পদ্ধতিতে ১ গ্রাম সোনার দাম ৬,৯৩৩ টাকা
  • সনাতন পদ্ধতিতে ১ আনা সোনার দাম ৫,০৫৪ টাকা
  • সনাতন পদ্ধতিতে ৪ আনা সোনার দাম ২০,২১৬ টাকা
  • সনাতন পদ্ধতিতে ১ রতি সোনার দাম ৮৪২ টাকা
  • সনাতন পদ্ধতিতে ১ কেজি সোনার দাম ৬৯,৩৩,০০০ টাকা

টেবিল মাধ্যমে সাজিয়ে পাই:-

স্বর্ণের প্রকারভেদদাম
সনাতন পদ্ধতিতে (১১.৬৬৪ গ্রাম /১ ভরি)৮০,৮৬৬ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (১০ গ্রাম)৬৯,৩৩০ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (১ গ্রাম)৬,৯৩৩ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (১ আনা)৫,০৫৪ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (৪ আনা)২০,২১৬ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (১ রতি)৮৪২ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (১ কেজি)৬৯,৩৩,০০০ টাকা

আরো পড়ুন- ঢাকা সহ বাংলাদেশের সকল জেলা ও শহরে আজকের পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের সময়সূচী।

বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) আজকের সোনার দাম ২০২৪

বাজুস- আন্তর্জাতিক বাজার, দেশীয় বাজার এবং সাধারণ ভোক্তাদের বিবেচনায় রেখে দেশীয় বাজারে সোনার দাম নির্ধারণ করে। বাংলাদেশের বাজারে যখনি সোনার দাম নতুন করে নির্ধারণ করা হোক না কেন সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ জুয়েলারি সমিতি অর্থাৎ বাজুসের ভূমিকা থাকে সর্বাধিক। বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন এর প্রধান কার্যালয় লেভেল-১৯, বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্সে অবস্থিত। গত ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩, বাজুস কর্তৃক সোনা ও রুপোর দামের সর্বশেষ মূল্য তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। এখন আমার সমস্ত প্রিয় পাঠক যদি বাজুস কর্তৃক নির্ধারিত সোনা ও রুপোর দামের মূল্য তালিকা দেখতে ইচ্ছে প্রকাশ করে থাকেন, সেক্ষেত্রে আপনাদের উদ্দেশ্যে উক্ত তালিকাটি নিম্নে সুসজ্জিত ভাবে প্রদান করা হয়েছে।

এক ভরি সোনার দাম বাংলাদেশে ২০২৪

এক ভরি সোনার দাম, বর্তমান বাংলাদেশে যেমন গ্রাম, আনা, তোলা প্রভৃতি একক দ্বারা স্বর্ণ পরিমাপ করা হয়ে থাকে ঠিক তেমনি স্বর্ণ পরিমাপের আর এক পদ্ধতির নাম হল ভরি। ভরি সাধারণত ওজন পরিমাপের একক। দক্ষিণ এশিয়া এবং মধ্যপ্রাচ্যের দেশ গুলিতে যেমন দুবাই এবং বাংলাদেশে স্বর্ণ পরিমাপের জন্য ‘ভরি’ সাধারণত একক রূপে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

আপনার জেনে রাখা প্রয়োজন যে, ১ ভরি স্বর্ণ সর্বদা ১১.৬৬৪ গ্রাম স্বর্ণের সমান। অর্থাৎ ১ ভরি= ১১.৬৬৪ গ্রাম। এখন আপনি যদি প্রতি ১ ভরি স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করতে চান, সেক্ষেত্রে আপনাকে শুধুমাত্র প্রতি ১ গ্রাম স্বর্ণের দাম জেনে নিতে হবে তারপর ওই দামের সাথে ১১.৬৬৪ গুন করে দিলেই প্রতি ১ ভরি স্বর্ণের দাম কত চলছে তা সঠিক রুপে জানতে পারবেন।

আরো পড়ুন- কলকাতা বাজারে ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য কত চলছে।

আমাদের বাংলাদেশের বাজারে যে সমস্ত স্বর্ণ প্রতিষ্ঠান রয়েছে প্রায় প্রত্যেক জায়গাতেই প্রতি ভরি হিসাবে স্বর্ণ ক্রয় ও বিক্রয় হয়ে থাকে। এখন আপনি যদি ১ ভরি স্বর্ণ ক্রয় করতে চান সেক্ষেত্রে গ্রাম হিসাবে ১১.৬৬৪ গ্রাম স্বর্ণ ক্রয় করতে হবে আপনাকে। আপনারা বিশেষ ভাবে মনে রাখবেন, একাধারে ভরি হিসাবে যেমন ১ ভরি স্বর্ণ ১১.৬৬৪ গ্রামের সমান, তেমনি অপরদিকে তোলা হিসাবে ১ তোলা স্বর্ণ ১১.৬৬৪ গ্রাম এর সমান হয়ে থাকে। অবশ্য বহু ভারতীয় জুয়েলার্স ১ তোলা স্বর্ণ সমান ১০ গ্রাম পর্যন্ত ধরে থাকে হিসেবে।

আজকে এক ভরি সোনার দাম কত বাংলাদেশে?

সোনার প্রকারভেদসোনার দাম
২৪ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম/ ১ভরি)(আনুমানিক মূল্য) ১,২৪,২০৯ টাকা
২২ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম/ ১ভরি)১,১৯,৫৪৪ টাকা
২১ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম/ ১ভরি)১,১৪,১০৮ টাকা
১৮ ক্যারেট (১১.৬৬৪ গ্রাম/ ১ভরি)৯৭,৮০২ টাকা
সনাতন পদ্ধতিতে (১১.৬৬৪ গ্রাম/ ১ভরি)৮০,৮৬৬ টাকা
আজকে এক ভরি সোনার দাম

১ গ্রাম সোনার দাম বাংলাদেশে ২০২৪

গ্রাম হল পরিমাপের একক। স্বর্ণ পরিমাপের অন্যতম একক হিসাবে গ্রাম এর প্রচলন রয়েছে সর্বত্র। একই প্রকার বাংলাদেশেও প্রতি ১ গ্রাম স্বর্ণের দাম কত চলছে সে সম্পর্কে জানতে চেয়ে থাকেন বহু মানুষ। এখন আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে যে, স্বর্ণ কেন গ্রাম দ্বারা পরিমাপ করা হয়ে থাকে? এক্ষেত্রে বলা যায় যে স্বর্ণ যেহেতু একটি বহুমূল্যবান ধাতু সেক্ষেত্রে এই বহু মূল্যবান ধাতু বেশিরভাগ মানুষ স্বল্প পরিমাণ ক্রয় করে থাকেন, এজন্য স্বর্ণ দ্বারা প্রস্তুত যেকোনো প্রসাধনী সামগ্রী হোক বা স্বর্ণ বার বহু জায়গায় এই মূল্যবান ধাতু গ্রাম একক দ্বারা পরিমাপ করা হয়ে থাকে।

১০০০ মিলিগ্রাম = ১ গ্রাম। এখন অর্থাৎ বর্তমানে বিদেশে বা আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণ ক্রয় করতে গেলে ভরি হিসেবে স্বর্ণ ক্রয় করা সম্ভব নয়। কারণ, বিদেশে স্বর্ণ বিক্রির একক হিসেবে ওজন পরিমাপের আন্তর্জাতিক একক “কিলোগ্রাম” বা “আউন্স” ব্যবহার করা হয়। কিলোগ্রামের ভগ্নাংশ হচ্ছে “গ্রাম”। স্বর্ণ যেহেতু অনেক মূল্যবান, তাই সাধারণ মানুষ অত্যন্ত অল্প পরিমাণে এই ধাতু ক্রয় করে থাকে। তাই স্বর্ণের ওজন পরিমাপে গ্রাম বা আউন্স-ই বেশি ব্যবহার হয়।

একই প্রকার বাংলাদেশ থেকে বহু মানুষ স্বর্ণ ক্রয় করার জন্য ইন্টারনেট মাধ্যমে ১ গ্রাম স্বর্ণের মূল্য কত চলছে সে সম্পর্কে জানতে চেয়ে থাকেন। তাই আপনাকে স্বর্ণ ক্রয় করতে গেলে অতি অবশ্যই জানতে হবে বর্তমান বাংলাদেশে ১ গ্রাম স্বর্ণের মূল্য কত চলছে।

আজকে এক গ্রাম সোনার দাম কত বাংলাদেশে?

  • হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট প্রতি ১ গ্রাম সোনার দাম ১,০২,৪৯০ টাকা
  • হলমার্ককৃত ২১ ক্যারেট প্রতি ১ গ্রাম সোনার দাম ৯৭,৮৩০ টাকা
  • হলমার্ককৃত ১৮ ক্যারেট প্রতি ১ গ্রাম সোনার দাম ৮৩,৮৫০ টাকা
  • সনাতন পদ্ধতিতে প্রতি ১ গ্রাম সোনার দাম ৬৯,৩৩০ টাকা

স্বর্ণের দাম বৃদ্ধির কারণ!

বাংলাদেশের বাজারে স্বর্ণের মূল্য যেভাবে ক্রমাগত লাগাম ছাড়া বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে তাতে করে বিগত তিন বছরের হিসেব দেখলে চোখে পড়বে, মাত্র তিন বছর আগে বাংলাদেশে স্বর্ণের মূল্য ছিল ৭০ হাজার টাকার নিচে, কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে এই মূল্য আরো ৩০ হাজার টাকা বৃদ্ধি পেয়ে লাখ টাকার উপরে উঠেছে। অর্থাৎ বিগত তিন বছরের মধ্যেই বাংলাদেশ স্বর্ণের মূল্য ৪৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাজুস কর্তৃক স্বর্ণের মূল্য নির্ধারণ করা হয় বাংলাদেশে। গত মার্চ ২০২৩-এ বাজুস কর্তৃক নির্ধারিত দাম অনুযায়ী বাংলাদেশের স্বর্ণের মূল্য ৭ হাজার টাকা বৃদ্ধি পেয়েছিল। এরপর আবারো ২ হাজার টাকা বাড়ানো হয় গত জুন মাসে। তারপর স্বল্প নিম্নমুখীতা চোখে পড়ে বাংলাদেশে স্বর্ণের মূল্যে এবং দাম স্থিতিশীল হয়েছিল ৯৮ হাজার ৪৪৪ টাকায়। শেষ পর্যন্ত চলতি জুলাইয়ের ২০ তারিখে, বাজুস কর্তৃক ভালো কোয়ালিটির বিশুদ্ধ ২২ ক্যারেট হলমার্ককৃত প্রতি ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য নির্ধারণ করা হয় ১ লাখ ৭৭৭ টাকা। এবং এই দাম বাংলাদেশের সকল স্বর্ণ প্রতিষ্ঠানগুলোতে গত ২১ জুলাই থেকে কার্যকর হয়েছে বলে জানা যায়।

অবশ্য বর্তমান পরিস্থিতিতে অর্থাৎ গত ১৯ মে ২০২৪ বাজুস কর্তৃক সোনার দাম নতুন করে নির্ধারণ করা হয় এবং বাংলাদেশে ভালো কোয়ালিটির বিশুদ্ধ ২২ ক্যারেট হলমার্ককৃত প্রতি ১ ভরি স্বর্ণের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১,১৯,৫৪৪ টাকা। অর্থাৎ বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে বিশুদ্ধ ২২ ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য প্রতি ১ ভরিতে ২২৬৩ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

উপসংহার

তো বন্ধুরা আমরা আশা করবো আপনারা বাংলাদেশে আজকের সোনার দাম এর পোস্টটি অতি মনোযোগ সহকারে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছেন এবং আজ বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য কত চলছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে পেরেছেন এছাড়াও একই সাথে জানতে পেরেছেন স্বর্ণের মূল্য বৃদ্ধির কারণ সহ আরো অন্যান্য তথ্যসমূহ।

বহু প্রাচীনকাল থেকে স্বর্ণ নামক এই হলুদ ধাতু অত্যন্ত মহামূল্যবান রূপে পরিচিত আমাদের মানব সমাজে। তাই রোজকার কেনাবেচার জিনিস তো একেবারেই নয় এই মহামূল্যবান ধাতু। কিন্তু কোন বিবাহ তথা অন্য কোন পারিবারিক অনুষ্ঠান হোক বা ধর্মীয় আচার রীতি প্রায় সারা বছর ধরেই স্বর্ণ ক্রয় ও বিক্রয়ের খেলা চলতেই থাকে। এজন্য সাধারণ মানুষের অবশ্যই জানা আবশ্যক যে স্বর্ণ একটি মহামূল্যবান ধাতু তাই এই ধাতু ক্রয় করার সময় স্বর্ণের বিশুদ্ধতা বিচার করে নেওয়া উচিত। এর মাধ্যমে একজন ক্রেতা অতি সহজেই বুঝতে পারবেন উক্ত ক্রয় করা স্বর্ণে কতটা পরিমাণ বিশুদ্ধ স্বর্ণ মজুদ রয়েছে।

স্বর্ণের গুণমান অনুযায়ী ক্রয় যোগ্য স্বর্ণ বিভিন্ন ক্যারেটের হয়ে থাকে যেমন ২৪ ক্যারেট, ২২ ক্যারেট, ২১ ক্যারেট, ১৮ ক্যারেট। এ ক্ষেত্রে আপনি যদি স্বর্ণ বার ক্রয় করতে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে বিশুদ্ধ ও খাঁটি ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ ক্রয় করতে হবে। মনে রাখবেন যে এই ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ সম্পূর্ণরূপে খাঁটি হওয়ার দরুন এই প্রকার স্বর্ণের নমনীয়তা বেশি হয়ে থাকে এজন্য ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ দ্বারা অলংকার প্রস্তুত করা সম্ভব নয়। এখন আপনি যদি স্বর্ণ অলংকার ক্রয় করতে চান সেক্ষেত্রে ২২ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বোত্তম এবং আপনার জন্য উপযুক্ত হয়ে উঠবে। যেহেতু খাঁটি স্বর্ণের সাথে খাদ মিশ্রণ করে অলংকার প্রস্তুত করা হয় তাই এক্ষেত্রে ২২ ক্যারেট স্বর্ণে ৯১.৬৭ শতাংশ খাঁটি সোনা এবং ৮.৩৩ শতাংশ সংকর ধাতুর মিশ্রণ রয়েছে।

এছাড়াও ২১ ক্যারেট স্বর্ণ ক্রয় করতে গেলে সেক্ষেত্রে ৮৭.৫ শতাংশ খাঁটি স্বর্ণ এবং ১২.৫ শতাংশ খাদ অর্থাৎ সংকর ধাতুর মিশ্রণ করা হয়ে থাকে, এবং বাকি মজুদ সোনা বিশুদ্ধ হয়ে থাকে। একই প্রকার ১৮ ক্যারেট স্বর্ণে ৭৫ শতাংশ বিশুদ্ধ স্বর্ণ এবং ২৫ শতাংশ সংকর ধাতুর মিশ্রণ থাকে।

স্বর্ণ অলংকার ক্রয় করার আরো এক সঠিক পদ্ধতি হল অলংকারের উপর খোদাই করা সংখ্যা বিশেষ। আপনি অতি অবশ্যই কোন স্বর্ণ অলংকারের উপর দেখে থাকবেন ৯৯৯, ৯১৬, ৮৭৫, ৭৫০ সংখ্যাগুলি খোদাই করা রয়েছে। যদিও এই সংখ্যার আক্ষরিক অর্থ অনেকেই জানেন না। এজন্য ন্যায্য মূল্যে সঠিক ও বিশুদ্ধ স্বর্ণ ক্রয় করতে আপনাকে অতি অবশ্যই এই সমস্ত সংখ্যা গুলির আক্ষরিক অর্থ জানা প্রয়োজন।

ক্রয় করা স্বর্ণের উপর যদি ৯৯৯ মার্ক করা থাকে সেক্ষেত্রে বুঝতে হবে উক্ত স্বর্ণ সম্পূর্ণরূপে বিশুদ্ধ এবং খাঁটি অর্থাৎ ২৪ ক্যারেট স্বর্ণ। আবার যদি ক্রয় করার স্বর্ণের উপর ৯১৬ মার্ক করা থাকে সেক্ষেত্রে বুঝতে হবে উক্ত স্বর্ণ সম্পূর্ণরূপে বিশুদ্ধ নয় অর্থাৎ এই স্বর্ণ ২২ ক্যারেট স্বর্ণ এবং ২২ ক্যারেট স্বর্ণ সর্বদা অলংকার প্রস্তুত এর জন্য সর্বোত্তম। একই প্রকার ক্রয় করা স্বর্ণের উপর ৮৭৫ মার্ক দেখলেই বুঝতে হবে উক্ত স্বর্ণ ২১ ক্যারেট স্বর্ণ এবং আপনি যদি ১৮ ক্যারেট স্বর্ণ ক্রয় করতে চান সেক্ষেত্রে উক্ত স্বর্ণের উপর ৭৫০ মার্ক অবশ্যই থাকা বাধ্যতামূলক।

তো বন্ধুরা আপনারা স্বর্ণ বার অথবা স্বর্ণ অলংকার ক্রয় করার আগে অতি অবশ্যই উপরিউক্ত তথ্যস্বরূপ দেওয়া নিয়মকানুন গুলি মাথায় রাখবেন। এর ফলে আপনি ন্যায্য মূল্যে সঠিক ও বিশুদ্ধ স্বর্ণ ক্রয় করতে সক্ষম হবেন। আমাদের দেওয়া এই তথ্য আপনাকে সর্বদা অসাধু স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করবে। উক্ত নিবন্ধটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মনোযোগ সহকারে পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ। এছাড়াও এই প্রকার বাংলাদেশে সোনার দাম সম্পর্কিত তথ্যের সাথে দৈনিক আপডেটের থাকতে- ajkersonardam.com এর পাতায় চোখ রাখতে ভুলবে না।

আজকের স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪?

ইতিমধ্যেই গত ১৯ মে ২০২৪, বাজুস কর্তৃক আবারো নতুন করে নির্ধারিত হয়েছে বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্যারেট স্বর্ণের মূল্য। আমদানিকৃত বস্তু হিসাবে উক্ত নির্ধারিত দাম অনুযায়ী বাংলাদেশের স্বর্ণের দাম বেড়েছে বই কমেনি। নির্ধারিত নতুন দাম অনুযায়ী অলংকার উপযুক্ত সর্বোত্তম বিশুদ্ধ ২২ ক্যারেট হলমার্ককৃত প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ১,১৯,৫৪৪ টাকা। এছাড়াও, বিশুদ্ধ ২৪ ক্যারেট প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) পাকা সোনার মূল্য আনুমানিক ১,২৪,২০৯ টাকা। একই সময়, অলংকার উপযুক্ত বিশুদ্ধ ২১ ক্যারেট হলমার্ককৃত প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ১,১৪,১০৮ টাকা। একই প্রকার হলমার্ককৃত বিশুদ্ধ ১৮ ক্যারেট প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ৯৭,৮০২ টাকা এবং সনাতন পদ্ধতিতে প্রতি ১১.৬৬৪ গ্রাম (১ ভরি) সোনার দাম ৮০,৮৬৬ টাকা চলছে আজ।

২২ ক্যারেট সোনার দাম কত বাংলাদেশে ২০২৪?

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি সোনার দাম ১,১৯,৫৪৪ টাকা। (১তোলা)

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম সোনার দাম ১,০২,৪৯০ টাকা

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ গ্রাম সোনার দাম ১০,২৪৯ টাকা

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ আনা সোনার দাম ৭,৪৭১ টাকা

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ৪ আনা সোনার দাম ২৯,৮৮৬ টাকা

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ রতি সোনার দাম ১,২৪৫ টাকা

হলমার্ককৃত ২২ ক্যারেট ১ কেজি সোনার দাম ১,০২,৪৯,০০০ টাকা

আজকের পুরাতন স্বর্ণের দাম কত বাংলাদেশে?

সনাতন পদ্ধতিতে ১১.৬৬৪ গ্রাম/১ ভরি সোনার দাম ৮০,৮৬৬ টাকা। (১ তোলা)

সনাতন পদ্ধতিতে ১০ গ্রাম সোনার দাম ৬৯,৩৩০ টাকা

সনাতন পদ্ধতিতে ১ গ্রাম সোনার দাম ৬,৯৩৩ টাকা

সনাতন পদ্ধতিতে ১ আনা সোনার দাম ৫,০৫৪ টাকা

সনাতন পদ্ধতিতে ৪ আনা সোনার দাম ২০,২১৬ টাকা

সনাতন পদ্ধতিতে ১ রতি সোনার দাম ৮৪২ টাকা

সনাতন পদ্ধতিতে ১ কেজি সোনার দাম ৬৯,৩৩,০০০ টাকা

এক ভরি সমান কত গ্রাম?

বিশ্ববাজারে স্বর্ণ সর্বদা ট্রায় অউন্স অথবা কিলো দরে ক্রয় ও বিক্রয় হয়ে থাকে। কিন্তু আমাদের বাংলাদেশে স্বর্ণ ভড়িতেও ক্রয় ও বিক্রয় হয়ে থাকে। কিন্তু বহু মানুষই জানেন না এক ভরি সমান কত গ্রাম। এজন্য বন্ধুরা আপনারা অতি অবশ্যই জেনে রাখুন ১ভরি স্বর্ণ=১১.৬৬৪ গ্রাম স্বর্ণ এর সমান।

কত আনায় এক ভরি?

বন্ধুরা আমরা অনেকেই আগে স্বর্ণ ক্রয় করেছি অথবা ভবিষ্যতে স্বর্ণ ক্রয় করার ইচ্ছা প্রকাশ করে থাকি। কিন্তু আপনাকে জানতে হবে আমাদের বাংলাদেশে আনা অথবা ভরি হিসাবে স্বর্ণ বিক্রয় হয়ে থাকে। তাই স্বর্ণ অলংকার ক্রয় করতে গেলে কত আনায় এক ভরি অথবা এক ভরি সমান কত আনা সে সম্পর্কে স্বল্পবিস্তর অবগত থাকাটা আপনার অত্যন্ত জরুরী। এজন্য আমরা আপনাদের জানিয়ে দিই যে ১৬ আনা স্বর্ণ সর্বদা ১ ভরি স্বর্ণের সমান হয়ে থাকে। অর্থাৎ ১ ভরি = ১৬ আনা।

১ গ্রাম সমান কত আনা?

বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন ক্যারেট স্বর্ণ গ্রাম অথবা আনা মাধ্যমে ক্রয় ও বিক্রয় হয়ে থাকে। তাই আমাদের বাংলাদেশে বসবাসকারী বহু মানুষ ইন্টারনেট মাধ্যমে গ্রাম ও আনা-র হিসাব খুজে থাকেন। এজন্য আপনাদের সঠিক উত্তরস্বরূপ জানা উচিত যে ১ গ্রাম = ১.৩৭২ আনা। অর্থাৎ ১.৩৭২ আনা স্বর্ণ সর্বদা ১ গ্রাম স্বর্ণের সমান হয়ে থাকে।

সনাতন পদ্ধতিতে সোনার দাম কত?

কত ক্যারেট সোনা সবচেয়ে বিশুদ্ধ?

২২ ক্যারেট স্বর্ণ সবচেয়ে বিশুদ্ধ স্বর্ণ হিসেবে আখ্যায়িত।

কোন ধরনের অথবা কত ক্যারেট সোনার দাম সবচেয়ে বেশি?

২৪ ক্যারেট স্বর্ণের দাম সবচেয়ে বেশি হয়ে থাকে।

কোন ধরনের অথবা কত ক্যারেট সোনা সবচেয়ে বেশি বিশুদ্ধ হয়ে থাকে?

২৪ ক্যারেট সোনা সবচেয়ে বেশি বিশুদ্ধ ও খাঁটি হয়ে থাকে।

১ ভরি সমান কত গ্রাম?

সর্বদা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ১ ভরি = ১১.৬৬৪ গ্রাম।

Swagatam

আমি স্বাগতম মাইতি। দীর্ঘদিন যাবত আমি ব্লগিং এর সাথে জড়িত। আজকের সোনার দাম ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি প্রত্যহ কলকাতায় সোনার দাম, বাংলাদেশে সোনার দাম, বিভিন্ন দেশের টাকার রেট সহ দৈনন্দিন তাজা খবর সম্পর্কে সবার আগে অবগত হতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button