এই দেশ থেকে 14 কোটি টন সোনা আমদানি করতে চলেছে ভারত! দাম কমবে হলুদ ধাতুর, ধৈর্য রাখুন

4/5 - (25 votes)

প্রস্তুতি তুঙ্গে রেখে ভারত সরকার সোনা আমদানির জন্য এক নতুন উইন্ডো খুলতে চলেছে, যে মাধ্যমে আমদানি হবে এই বিপুল পরিমাণ সোনা। সংযুক্ত আরব আমিরাত এর (United Arab Emirates) নাম তো আমরা প্রত্যেকেই শুনেছি, কাঁচা সবজি রপ্তানি এবং তৈল আমদানির মধ্য দিয়ে ভারতের সাথে সেদেশের সম্পর্ক বেশ জোরালো। কিন্তু এইবার স্বর্ণ আমদানির ক্ষেত্রে ভারত সরকার এক বিরাট পদক্ষেপ এর মধ্য দিয়ে আমদানি করতে চলেছে প্রায় 14 কোটি টন সোনা। এই অনুমতি দেওয়া হয়েছে টেরিফ রেট কোটা (TRQ) এর অধীনে।

তথ্যসূত্রে খবর, কম্প্রেহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপ এগ্রিমেন্ট (CEPA) অনুযায়ী 2023-24 এর অর্থবছরে ইউনাইটেড আরব আমিরেটস থেকে মোট 1400 মিলিয়নটন স্বর্ণ আমদানি করতে চলেছে ভারত। কার্যকর শুল্ক বা মোস্ট ফেভার নেশন (MFN) যাকে স্বাভাবিক বাণিজ্য সম্পর্ক বলা হয়ে থাকে এই হারের বিপরীতে 1% শুলকো ছাড় দিয়ে মোট শুল্ক লাগু হবে 15% ।

বিদেশি বাণিজ্যের মহাপরিচালক সন্তোষ সারঙ্গী বৃহস্পতিবার এই বিষয়টি নিয়ে জানান যে, ভারত এবং ইউনাইটেড আরব আমিরাতের অর্থনৈতিক অংশীদারি চুক্তি (CEPA) সংশোধন করে নতুন আবেদনকারীদের জন্য সোনার (TRQ) বরাদ্দ করা হবে।

এবং এই বিষয় সম্পর্কে পদাধিকারী কর্মকর্তাদের থেকে জানা গেছে, নির্মাতা এবং জুয়েলার্সদের উইন্ডো ব্যবহার করার অনুমতি দেওয়া হবে। এর ফলে দেশে সস্তায় সোনা আমদানি করা হলেও সরকারের কোনরূপ ক্ষতি হবে না। অপরদিকে মানুষও এর সুবিধা নিতে পারবেন।

জেনে রাখা ভালো যে, গত বছরে 110 মেট্রিক টন সোনা রেয়াতি হারে আমদানির অনুমতি দেওয়া হয়েছিল যার মধ্যে আমদানি হয়েছে মাত্র 81 লাখ টন। খবর সূত্রে পাওয়া যায় ইউনাইটেড আরব আমিরেটস অর্থাৎ UAE সরকার নাকি শুধুমাত্র গয়না প্রস্তুতকারকদের জন্য সোনার TRQ এর নিয়মাবলী সরিয়ে ফেলে সমস্ত আমদানি কারকদের কোটা দেওয়ার জন্য অনুমতি নিয়ে থাকে। কিন্তু সরকার এবার এক উইন্ডো সিস্টেম শুরু করতে চলেছে যার মাধ্যমে আমদানি এবং রপ্তানিকারক প্রত্যেকের জন্যই উন্মুক্ত থাকবে এই পথ।

Leave a Comment