আপনার ও কি প্যান কার্ড নিষ্ক্রিয় হয়েছে? সেক্ষেত্রে এই ১৫ কাজ করা আর সম্ভব নয়!

1/5 - (1 vote)

আমাদের ভারত সরকারের পক্ষ থেকে প্যান কার্ড এবং আধার কার্ড এর লিংক করার সময়সূচির শেষ তারিখ ছিল ৩০ জুন ২০২৩ পর্যন্ত। এমনকি আমাদের দেশের সরকারের পক্ষ থেকে এই সময়সীমা আর বাড়ানো হয়নি। কাজেই যে সমস্ত ব্যক্তি উক্ত প্রদত্ত সময়ের মধ্যে প্যান এর সাথে আদার কার্ড লিঙ্ক করাননি, তাদের প্যান কার্ড ১ জুলাই ২০২৩ তারিখ থেকেই নিষ্ক্রিয় বলে ধরা হবে।

এক্ষেত্রে যে সমস্ত ব্যক্তিদের প্যান কার্ডের সাথে আধার কার্ড এখনো পর্যন্ত লিঙ্ক করানো হয়নি তারা সম্যক ভবিষ্যতে কার্যত অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে চলেছেন। আর যে সমস্ত ব্যক্তি তাদের প্যানকার্ডে এর সাথে আধার কার্ড ইতিমধ্যেই লিংক করে ফেলেছেন তাদের আর কোন ঝক্কই পোহানোর ব্যাপার নেই। কিন্তু যে সমস্ত প্যান কার্ড এখনো পর্যন্ত আধার কার্ড এর সাথে লিঙ্ক হয়নি, সেই প্যান গ্রাহকদের ভবিষ্যতে যে ১৫ সমস্ত সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে সেগুলির নিম্নরূপ নিচে উল্লেখ করা হলো।

প্রথম: টাইম ডিপোজিট বা সাধারন সেভিংস অ্যাকাউন্ট ছাড়া অন্য কোন রকম ব্যাংক একাউন্ট খোলা যাবে না।

দ্বিতীয়: ক্রেডিট ও ডেবিট কার্ডের জন্য আবেদন করা যাবে না।

তৃতীয়: সেবি রেজিস্টার্ড সংস্থাগুলোর সঙ্গে শেয়ার বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ডিম্যাট অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে না।

চতুর্থ: যেকোন রকম কেনাকাটা বা কোন জায়গায় ৫০ হাজার টাকার উপর অনলাইন পেমেন্ট করা যাবে না।

পঞ্চম: মিউচুয়াল ফান্ডে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকার উপর বিনিয়োগ করা যাবে না।

ষষ্ঠ: বিদেশ যাত্রা ক্ষেত্রে অথবা কোন বৈদেশিক সামগ্রী কেনার ক্ষেত্রে পঞ্চাশ হাজার টাকার উপর পেমেন্ট করা যাবে না।

সপ্তম: রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার ৫০ হাজার টাকার উপর বন্ড কেনা যাবে না।

অষ্টম: ব্যাংকে একদিনে পঞ্চাশ হাজার টাকার বেশি জমা করা যাবে না।

নবম: কোন প্রতিষ্ঠান বন্ড বা ডিবেঞ্জার ৫০ হাজার টাকার নিচে থাকলে তা পেতে হলে অর্থ প্রদান করতে হবে।

দশম: ব্যাংক, পোস্ট অফিস, এনবিসি, নিধি এইসব জায়গাতেই নির্দিষ্ট আর্থিক বছরে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকার উপর ফিক্সড ডিপোজিট করা যাবে না।

একাদশ: মোবাইল ওয়ালেটের মতো প্রিপেড পেমেন্ট এর ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট আর্থিক বছরে ৫০ হাজার টাকার উপরে লেনদেন করা সম্ভব হবে না।

দ্বাদশ: ব্যাংক ড্রাফট পে অর্ডার বা চেকের অংক ৫০ হাজার টাকার উপরে হলে লেনদেন সম্ভব হবে না।

ত্রয়োদশ: সিকিউরিটি কেনাবেচার ক্ষেত্রে লেনদেন ১ লক্ষ টাকার উপরে হলে তা সম্ভব হবে না।

চতুর্দশ: তালিকা বিহীন কোম্পানির শেয়ার কেনা বেচার ক্ষেত্রে লেনদেন ১ লক্ষ টাকার উপরে সম্ভব নয়।

পঞ্চদশ: লাইফ ইন্সুরেন্স এর ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট আর্থিক বছরে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত লেনদেন সম্ভব।

তো বন্ধুরা আমরা আশা করব আপনারা উপরে উক্ত তথ্যটি অতি মনোযোগ সহকারে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েছেন এবং কোন প্যান কার্ড নিষ্ক্রিয় হলে সেক্ষেত্রে কোন কাজগুলি করা সম্ভব নয় সে সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জানতে পেরেছেন। এছাড়াও আপনার যদি এই প্রকার তথ্য নিয়মিত রূপে পেতে চান সে ক্ষেত্রে- ajkersonardam.com এর পাতায় চোখ রাখতে ভুলবেন না।

Leave a Comment